জীবাশ্ব জ্বালানিতে বিনিয়োগ বন্ধের দাবিতে রাজশাহীতে “পরিবর্তন” ও “বিডব্লিউজিইডি” মানববন্ধন

শেয়ার করুন

বিস্তারিত দেখুন নিচের ভিডিও লিংকে সেলিম উদ্দীনের প্রতিবেদনে…

জাতিসংঘের উদ্যোগে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় জ্বালানি কোম্পানিগুলো এ সপ্তাহে ইউএন গ্লোবাল কমপ্যক্ট নামে একটি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এ সম্মেলনে জীবাশ্ম জ্বালানিতে বিনিয়োগকারি কোম্পানিগুলো বন্ধের দাবিতে রাজশাহীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ সোমবার দুপুরে রাজশাহী মহানগরীর অলকার মোড়ে মানবাধিকার ও পরিবেশবাদী সংগঠন “পরিবর্তন” ও “বাংলাদেশ ওয়ার্কিং গ্রুপ অন এক্সটার্নাল ডেব্ট”(বিডব্লিউজিইডি) এর যৌথ উদ্যোগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, মানবাধিকার ও পরিবেশবাদী সংগঠন “পরিবর্তন” এর পরিচালক রাশেদ রিপন, মহিলা পরিষদ রাজশাহী জেলা সভাপতি কল্পনা রায়, জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির পরিচালক (লিগ্যাল) অ্যাডভোকেট দিল সেতারা বেগম চুনি, অগ্নি প্রকল্পের জেলা সমন্বয়কারি হাসিবুল হাসান এবং উইমেন ইন্টার প্রেনিয়র অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ওয়েব) জেলা সভাপতি আঞ্জুমান আরা লিপি।

বক্তাগণ বলেন, সম্মেলনের প্রথম দিন পৃথিবীর সবথেকে ধনী ১০টি জ্বালানি কোম্পানির কর্তাব্যক্তিরা বক্তব্য রাখবেন এবং তাদের পরিকল্পনা পেশ করবেন। এই সকল নোংরা কোম্পানিগুলোর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। জলবায়ু পরিবর্তন জনিত অভিঘাতের জন্য আমরা এক সময় ধনী দেশ গুলোকে দায়ী করতাম। সস্তা বিদ্যুতের কথা বলে কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন করে বাংলাদেশেও পরিবেশ দূষনে সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের পরিবেশবাদীরা সুন্দরবনের পাশে রামপালসহ বিভিন্ন কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের বিরোধিতা করে এসেছে। এর বিকল্প হিসেবে পরিবেশবান্ধব বিভিন্ন জ্বালানি খাতের বিষয়ে তাদের মতামত উপস্থাপন করেছে।

কয়লাতে বিনিয়োগকারিরা সারা বিশ্বে তাদের বিনিয়োগ সুরক্ষিত রাখার জন্য সকল শর্ত নিজেদের পক্ষে রাখে। এই পরিবেশ ধ্বংশকারী জীবাশ্ব জ্বালানিতে বিনিয়োগ বন্ধের দাবিতে সারা বিশ্বে প্রতিবাদ চলছে।