রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে টমেটো গাছে গোড়া পঁচাসহ রোগবালাইয়ের প্রার্দুরভাব, হতাশ চাষীরা

শেয়ার করুন

বিস্তারিত দেখুন ভিডিও লিংকেঃ

 

রাজশাহীতে রবি মৌসুমের টমেটো চাষে বিপাকে পড়ছেন রাজশাহীর চাষীরা। শুরুতে টানা বর্ষণ ও আবহাওয়ার তারতম্যের কারণে দেখা দিচ্ছে গাছের গোড়া পচাসহ বিভিন্ন রোগবালাই। সময়মত ফুল ফুটতে না পারায় ব্যঘাত ঘটেছে পরাগায়নেও। এতে করে কাঙ্খিত ফসল পাওয়াসহ বড় ধরনের আর্থিক ক্ষতির শঙ্কায় পড়েছেন চাষীরা। তবে টমেটো চাষীদের ক্ষতি কাটিয়ে নিতে মাঠপর্যায়ে কাজ শুরু করেছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।

রাজশাহীর বরেন্দ্র অঞ্চলের মধ্যে সব চেয়ে বেশি রবি মৌসুমে টমেটোর চাষ হয় গোদাগাড়ী উপজেলায়। এবার এ উপজেলায় তিন হাজার হেক্টর জমিতে টমেটোর চাষাবাদ হচ্ছে। যা গত বারের চেয়ে ৯শ হেক্টর বেশী। মাঠ জুড়ে তাকালে দেখা মিলে টমোটের ক্ষেত। এবারের মৌসুমে টানা বৃষ্টিপাত ও প্রচন্ড ভ্যাপসা গরমের কারণে টমেটো গাছের গোড়া পঁচা, পাতা কুকড়িমুকড়ী হয়ে থাকা ও ফুল ঝড়ে যাওয়া রোগে ভূগছে কৃষকরা। কৃষকরা এসব কাটিয়ে উঠতে বালাই নাশক ঔষধ ব্যাবহার করেও তেমন কোন লাভ করতে পারছে না। গাছ লাগানো প্রায় দেড় হতে দুই মাস পর, গাছে ফল দেখা মেলে ও বড় হয়। তবে এখন পর্যন্ত তা দেখা না যাওয়ায়,
দুশ্চিন্তায় আছেন টমেটো চাষীরা।

অধিক তাপমাত্র ও অধিক বৃষ্টিপাতের কারণে রোগের প্রার্দুর ভাব দেখা দিয়েছিলো তা খুব সিরিয়াস পর্যায়ে নেই। কৃষকদের এসব সমস্যা সমাধানের জন্য প্রতিনিয়ত উঠান বৈঠক, প্রয়োজনীয় কৃষি পরামর্শ ও কৃষক সমাবেশ করে হচ্ছে যাতে করে, তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা সঠিক ভাবে করতে পারে বলে জানান গোদাগাড়ী উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা, মো: মতিয়র রহমান।

এবছর জেলায় তিন হাজর এক’শ সত্তর হেক্টর জমিতে ৭২ হাজার মেট্রিক টন টমেটো উৎপাদন লক্ষমাত্রা ধরা হয়েছে। যার আনুমানিক বাজার মূল্য প্রায় দেড়’শ কোটি টাকার উপরে।