রাজশাহীর বাগমারায় ব্যবসা-প্রতিষ্ঠন দখল ও মারপিটের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

শেয়ার করুন

বিস্তারিত দেখুন নিচের ভিডিও লিংকে সেলিম উদ্দীনের প্রতিবেদনে…

রাজশাহীর বাগমারার হামিরকুৎসা ইউনিয়নে ব্যবসা-প্রতিষ্ঠন দখল, মারপিট ও শ্লীলতাহানীর প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার বিকেল তিনটায় রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়ন কার্যালয়ের সভাকক্ষে ভুক্তভোগী পরিবরের পক্ষে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী শরিফুল ইসলাম রাজু তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, তিনি দীর্ঘ ২৫/২৬ বছর ধরে বাগমারা উপজেলায় কাঠের ব্যবসা এবং গত ১২ বছর যাবত এম.আর.ই ক্যাবল(ডিস) ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন সরকারি সকল কাগজ পত্রের বৈধতা নিয়ে।

তিনি বলেন, গত ৬ অক্টোবর আমার অসুস্থতার কারনে স্ত্রী ও দুই সন্তানসহ তারা হামিরকুৎসা বাজারে অবস্থিত আমার ক্যাবল নেটওয়ার্ক অফিসে যায় ব্যবসা পরিচালনার কাজে। এসময় আনুমানিক সন্ধ্যা ৬ টার দিকে হামিরকুৎসা ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি শাহ রেজা আলম ইমনের নেতৃত্ত্বে একটি সন্ত্রাসী বাহিনী চাইনিজ কুড়াল, হাসুয়া, লোহার রডসহ দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে আমার প্রতিষ্ঠানে হামলা ও ভাংচুর চালায়। এছাড়া আমার দুই ছেলেকে হত্যার উদ্দেশ্যে মাথায় হামলা করে তাদের মাথা ফাটিয়ে দেয়া হয় এবং আমার স্ত্রীর শ্লীলতাহানীর চেষ্টা চালায় ও গলার একটি চেইন ছিনিয়ে নেয়।

ভুক্তভোগী রাজু আরও বলেন, এসব সন্ত্রাসী ঘটনার বিরুদ্ধে বাগমারা থানায় একটি সাধারন ডাইরী করতে গেলে তারা তা গ্রহণ করেনি। বরং অভিযুক্তদের সাথে আপোষ মিমাংসার কথা বলেন দায়িত্ব শেষ করেছেন। এসময় ভুক্তভোগী পরিবার সংবাদ সম্মেলন থেকে প্রশাসনের সকলের সহযোগীতা কামনা করেছেন।

এছাড়া সংবাদ সম্মেলনে শরিফুল ইসলাম রাজুর স্ত্রী ফাহিমা খাতুন, দুই ছেলে জাকিরুল ইসলাম ও জিয়াউল ইসলামসহ স্থানীয় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।